Home > Verses > সেঁজুতি

সেঁজুতি

উৎসর্গ (অন্ধতামসগহ্বর হতে) জন্মদিন (আজ মম জন্মদিন। সদ্যই প্রাণের প্রান্তপথে) পত্রোত্তর (চিরপ্রশ্নের বেদীসম্মুখে চিরনির্বাক রহে)
যাবার মুখে (যাক এ জীবন) অমর্ত (আমার মনে একটুও নেই বৈকুন্ঠের আশা) পলায়নী (যে পলায়নের অসীম তরণী)
স্মরণ (যখন রব না আমি মর্তকায়ায়) সন্ধ্যা (চলেছিল সারাপ্রহর) ভাগীরথী (পূর্বযুগে, ভাগীরথী, তোমার চরণে দিল আনি)
তীর্থযাত্রিণী (তীর্থের যাত্রিণী ও যে, জীবনের পথে) নতুনকাল (কোন্‌-সে কালের কন্ঠ হতে এসেছে এই স্বর) চলতি ছবি (রোদ্‌দুরেতে ঝাপসা দেখায় ওই-যে দূরের গ্রাম)
ঘরছাড়া (তখন একটা রাত-- উঠেছে সে তড়বড়ি) জন্মদিন (দৃষ্টিজালে জড়ায় ওকে হাজারখানা চোখ) প্রাণের দান (অব্যক্তের অন্তঃপুরে উঠেছিলে জেগে)
নিঃশেষ (শরৎবেলার বিত্তবিহীন মেঘ) প্রতীক্ষা (অসীম আকাশে মহাতপস্বী) পরিচয় (একদিন তরীখানা থেমেছিল এই ঘাটে লেগে)
পালের নৌকা (তীরের পানে চেয়ে থাকি পালের নৌকা ছাড়ি) চলাচল (ওরা তো সব পথের মানুষ, তুমি পথের ধারের) মায়া (করেছিনু যত সুরের সাধন)
গগনেন্দ্রনাথ ঠাকুর (রেখার রঙের তীর হতে তীরে) ছুটি (আমার ছুটি আসছে কাছে সকল ছুটির শেষ)