Home > Stories > লিপিকা > নতুন পুতুল
Chapters: 1 | 2 | 3 | 4 | 5 | SINGLE PAGE Next Previous

নতুন পুতুল    


বুড়োর মন ভাঙল, বুড়োর দিনও চলে না। শেষকালে তার মেয়ে এসে তাকে বললে, 'তুমি আমার বাড়িতে এসো।'

 

জামাই বললে, 'খাও দাও, আরাম করো, আর সবজির খেত থেকে গোরু বাছুর খেদিয়ে রাখো।'

 

বুড়োর মেয়ে থাকে অষ্টপ্রহর ঘরকরনার কাজে। তার জামাই গড়ে মাটির প্রদীপ, আর নৌকো বোঝাই করে শহরে নিয়ে যায়।

 

নতুন কাল এসেছে সে কথা বুড়ো বোঝে না, তেমনিই সে বোঝে না যে, তার নাৎনির বয়স হয়েছে ষোলো।

 

যেখানে গাছতলায় ব'সে বুড়ো খেত আগলায় আর ক্ষণে ক্ষণে ঘুমে ঢুলে পড়ে সেখানে নাৎনি গিয়ে তার গলা জড়িয়ে ধরে; বুড়োর বুকের হাড়গুলো পর্যন্ত খুশি হয়ে ওঠে। সে বলে, 'কী দাদি, কী চাই।'

 

নাৎনি বলে, 'আমাকে পুতুল গড়িয়ে দাও, আমি খেলব।'

 

বুড়ো বলে, 'আরে ভাই, আমার পুতুল তোর পছন্দ হবে কেন।'

 

নাৎনি বলে, 'তোমার চেয়ে ভালো পুতুল কে গড়ে শুনি।'

 

বুড়ো বলে, 'কেন, কিষণলাল।'

 

নাৎনি বলে, 'ইস্‌! কিষণলালের সাধ্যি!'

 

দুজনের এই কথা-কাটাকাটি কতবার হয়েছে। বারে বারে একই কথা।

 

তার পরে বুড়ো তার ঝুলি থেকে মালমশলা বের করে; চোখে মস্ত গোল চশমাটা আঁটে।

 

নাৎনিকে বলে, 'কিন্তু দাদি, ভুট্টা যে কাকে খেয়ে যাবে।'

 

নাৎনি বলে, 'দাদা, আমি কাক তাড়াব।'

 

বেলা বয়ে যায়; দূরে ইঁদারা থেকে বলদে জল টানে, তার শব্দ আসে; নাৎনি কাক তাড়ায়, বুড়ো বসে বসে পুতুল গড়ে।

 




Chapters: 1 | 2 | 3 | 4 | 5 | SINGLE PAGE Next Previous