Home > Verses > খেয়া > দান

দান    


           ভেবেছিলাম চেয়ে নেব,

                চাই নি সাহস করে--

           সন্ধেবেলায় যে মালাটি

                গলায় ছিলে পরে--

    আমি      চাই নি সাহস করে।

           ভেবেছিলাম সকাল হলে

           যখন পারে যাবে চলে

           ছিন্ন মালা শয্যাতলে

                রইবে বুঝি পড়ে।

           তাই আমি কাঙালের মতো

                এসেছিলেম ভোরে--

    তবু       চাই নি সাহস করে।

 

           এ তো মালা নয় গো, এ যে

                তোমার তরবারি।

           জ্বলে ওঠে আগুন যেন,

                বজ্র-হেন ভারী--

    এ যে      তোমার তরবারি।

 

তরুণ আলো জানলা বেয়ে

           পড়ল তোমার শয়ন ছেয়ে,

           ভোরের পাখি শুধায় গেয়ে

                "কী পেলি তুই নারী'।

           নয় এ মালা, নয় এ থালা,

                গন্ধজলের ঝারি,

    এ যে      ভীষণ তরবারি।

 

           তাই তো আমি ভাবি বসে

                এ কী তোমার দান।

           কোথায় এরে লুকিয়ে রাখি

                নাই যে হেন স্থান।

    ওগো,      এ কী তোমার দান।

           শক্তিহীনা মরি লাজে,

           এ ভূষণ কি আমায় সাজে।

           রাখতে গেলে বুকের মাঝে

                ব্যথা যে পায় প্রাণ।

           তবু আমি বইব বুকে

                এই বেদনার মান--

    নিয়ে        তোমারি এই দান।

 

           আজকে হতে জগৎমাঝে

               ছাড়ব আমি ভয়,

           আজ হতে মোর সকল কাজে

               তোমার হবে জয়--

    আমি       ছাড়ব সকল ভয়।

           মরণকে মোর দোসর করে

           রেখে গেছ আমার ঘরে,

           আমি তারে বরণ ক'রে

                 রাখব পরান-ময়।

 

   তোমার তরবারি আমার

      করবে বাঁধন ক্ষয়।

    আমি      ছাড়ব সকল ভয়।

 

          তোমার লাগি অঙ্গ ভরি

                করব না আর সাজ।

          নাই-বা তুমি ফিরে এলে

                ওগো হৃদয়রাজ।

    আমি      করব না আর সাজ।

          ধুলায় বসে তোমার তরে

          কাঁদব না আর একলা ঘরে,

          তোমার লাগি ঘরে-পরে

                মানব না আর লাজ।

          তোমার তরবারি আমায়

                সাজিয়ে দিল আজ,

    আমি      করব না আর সাজ।

 

 

  গিরিডি, ২৬ ভাদ্র, ১৩১২