প্রেমে প্রাণে গানে গন্ধে আলোকে পুলকে

প্লাবিত করিয়া নিখিল দ্যুলোক-ভূলোকে

              তোমার অমল অমৃত পড়িছে ঝরিয়া।

                     দিকে দিকে আজি টুটিয়া সকল বন্ধ

                     মুরতি ধরিয়া জাগিয়া ওঠে আনন্দ;

                           জীবন উঠিল নিবিড় সুধায় ভরিয়া।

 

চেতনা আমার কল্যাণ-রস-সরসে

শতদল-সম ফুটিল পরম হরষে

              সব মধু তার চরণে তোমার ধরিয়া।

                     নীরব আলোকে জাগিল হৃদয়প্রান্তে

                     উদার উষার উদয়-অরুণ কান্তি,

                           অলস আঁখির আবরণ গেল সরিয়া।

 

 

  অগ্রহায়ণ, ১৩১৪