৪৮    


       আকাশতলে উঠল ফুটে

              আলোর শতদল।

       পাপড়িগুলি থরে থরে

       ছড়ালো দিক্‌-দিগন্তরে,

       ঢেকে গেল অন্ধকারের

              নিবিড় কালো জল।

       মাঝখানেতে সোনার কোষে

       আনন্দে ভাই আছি বসে,

       আমায় ঘিরে ছড়ায় ধীরে

               আলোর শতদল।

 

                           আকাশেতে ঢেউ দিয়ে রে

                                  বাতাস বহে যায়।

                           চার দিকে গান বেজে ওঠে,

                           চার দিকে প্রাণ নাচে ছোটে,

                           গগনভরা পরশখানি

                                  লাগে সকল গায়।

                           ডুব দিয়ে এই প্রাণসাগরে

                           নিতেছি প্রাণ বক্ষ ভরে,

                           ফিরে ফিরে আমায় ঘিরে

                                  বাতাস বহে যায়।

 

       দশ দিকেতে আঁচল পেতে

              কোল দিয়েছে মাটি।

       রয়েছে জীব যে যেখানে

       সকলকে সে ডেকে আনে,

       সবার হাতে সবার পাতে

              অন্ন সে দেয় বাঁটি।

       ভরেছে মন গীতে গন্ধে,

       বসে আছি মহানন্দে,

       আমায় ঘিরে আঁচল পেতে

              কোল দিয়েছে মাটি।

 

                     আলো, তোমায় নমি আমার

                           মিলাক অপরাধ।

                     ললাটেতে রাখো আমার

                           পিতার আশীর্বাদ।

                     বাতাস, তোমায় নমি, আমার

                           ঘুচুক অবসাদ,

                     সকল দেহে বুলায়ে দাও

                           পিতার আশীর্বাদ।

                     মাটি, তোমায় নমি, আমার

                           মিটুক সর্ব সাধ।

                     গৃহ ভরে ফলিয়ে তোলো

                            পিতার আশীর্বাদ।

 

 

  পৌষ, ১৩১৬