২২    


            কে গো অন্তরতর সে।

আমার চেতনা আমার বেদনা

            তারি সুগভীর পরশে।

আঁখিতে আমার বুলায় মন্ত্র,

বাজায় হৃদয়বীণার তন্ত্র,

কত আনন্দে জাগায় ছন্দ

            কত সুখে দুখে হরষে।

 

সোনালি রুপালি সবুজে সুনীলে

সে এমন মায়া কেমনে গাঁথিলে,

তারি সে আড়ালে চরণ বাড়ালে

            ডুবালে সে সুধাসরসে।

কত দিন আসে কত যুগ যায়

গোপনে গোপনে পরান ভুলায়,

নানা পরিচয়ে নানা নাম লয়ে

          নিতি নিতি রস বরষে।

 

 

  শান্তিনিকেতন, ৬ বৈশাখ, ১৩১৯