৮২    


            হে অন্তরের ধন,

      তুমি যে বিরহী, তোমার শূন্য এ ভবন।

আমার ঘরে তোমায় আমি

একা রেখে দিলাম স্বামী,

      কোথায় যে বাহিরে আমি

            ঘুরি সকল ক্ষণ।

 

            হে অন্তরের ধন,

      এই বিরহে কাঁদে আমার নিখিল ভুবন।

তোমার বাঁশি নানা সুরে

আমায় খুঁজে বেড়ায় দূরে,

      পাগল হল বসন্তের এই

            দখিন সমীরণ।

 

 

  ১৫ চৈত্র, ১৩২০