Home > Verses > বীথিকা >   বনস্পতি

  বনস্পতি    


কোথা হতে পেলে তুমি অতি পুরাতন

          এ যৌবন,

          হে তরু প্রবীণ,

             প্রতিদিন

জরাকে ঝরাও তুমি কী নিগূঢ় তেজে--

     প্রতিদিন আসো তুমি সেজে

          সদ্য জীবনের মহিমায়।

               প্রাচীনের সমুদ্রসীমায়

     নবীন প্রভাত তার অক্লান্ত কিরণে

তোমাতে জাগায় লীলা নিরন্তর শ্যামলে হিরণে।

     দিনে দিনে পথিকের দল

          ক্লিষ্টপদতল

তব ছায়াবীথি দিয়ে রাত্রি-পানে ধায় নিরুদ্দেশ;

     আর তো ফেরে না তারা, যাত্রা করে শেষ।

তোমার নিশ্চল যাত্রা নব নব পল্লব-উদ্‌গমে,

     ঋতুর গতির ভঙ্গে পুষ্পের উদ্যমে।

          প্রাণের নির্ঝরলীলা স্তব্ধ রূপান্তরে

               দিগন্তরে পুলকিত করে।

          তপোবনবালকের মতো

আবৃত্তি  করিছ তুমি ফিরে ফিরে অবিরত

          সঞ্জীবন-সামমন্ত্র-গাথা।

                   তোমার পুরানো পাতা

                       মাটিরে করিছে প্রত্যর্পণ

                         মাটির যা মর্তধন;

                   মৃত্যুভার সঁপিছে মৃত্যুরে

                         মর্মরিত আনন্দের সুরে।

                   সেইক্ষণে নবকিশলয়

                         রবিকর হতে করে জয়

                             প্রচ্ছন্ন আলোক

                         অমর অশোক

                   সৃষ্টির প্রথম বাণী;

                      বায়ু হতে লয় টানি

                          চিরপ্রবাহিত

                             নৃত্যের অমৃত।

 

 

  ২ অগস্ট, ১৯৩২