Home > Verses > প্রহাসিনী > কালান্তর

কালান্তর    


তোমার ঘরের সিঁড়ি বেয়ে

             যতই আমি নাবছি।

আমায় মনে আছে কি না

             ভয়ে ভয়ে ভাবছি।

কথা পাড়তে গিয়ে দেখি,

             হাই তুললে দুটো;

বললে উসুখুসু করে,

             "কোথায় গেল নুটো।"

ডেকে তারে বলে দিলে,

             "ড্রাইভারকে বলিস,

আজকে সন্ধ্যা নটার সময়

             যাব মেট্রোপলিস।"

কুকুরছানার ল্যাজটা ধরে

             করলে নাড়াচাড়া;

বললে আমায়, "ক্ষমা করো,

             যাবার আছে তাড়া।"

তখন পষ্ট বোঝা গেল,

             নেই মনে আর নেই।

আরেকটা দিন এসেছিল

             একটা শুভক্ষণেই--

মুখের পানে চাইতে তখন,

             চোখে রইত মিষ্টি;

কুকুরছানার ল্যাজের দিকে

             পড়ত নাকো দৃষ্টি।

সেই সেদিনের সহজ রঙটা

             কোথায় গেল ভাসি;

লাগল নতুন দিনের ঠোঁটে

             রুজ-মাখানো হাসি।

বটসুদ্ধ পা-দুখানা

             তুলে দিলে সোফায়;

ঘাড় বেঁকিয়ে ঠেসেঠুসে

             ঘা লাগালে খোঁপায়।

আজকে তুমি শুকনো ডাঙায়

             হালফ্যাশানের কূলে,

ঘাটে নেমে চমকে উঠি

             এই কথাটাই ভুলে।

এবার বিদায় নেওয়াই ভালো,

             সময় হল যাবার--

ভুলেছ যে ভুলব যখন

             আসব ফিরে আবার।

 

 

  শান্তিনিকেতন, ১৩ শ্রাবণ, ১৩৪৭