Home > Verses > রূপান্তর > কালিদাস-ভবভূতি

কালিদাস-ভবভূতি    


                কুমারসম্ভব॥ তৃতীয় সর্গ

 

কুবেরগুপ্তাং দিশমুষ্ণরশ্মৌ গন্তুং প্রবৃত্তে সময়ং বিলঙ্ঘ্য।

দিগ্‌দক্ষিণা গন্ধবহং মুখেন ব্যলীকনিশ্বাসমিবোৎসসর্জ॥ ২৫

অসূত সদ্যঃ কুসুমান্যশোকঃ স্কন্ধাৎ প্রভৃত্যেব সপল্লবানি।

পাদেন নাপৈক্ষত সুন্দরীণাং সম্পর্কমাশিঞ্জিতনূপুরেণ॥ ২৬

সদ্যঃ প্রবালোদগমচারুপত্রে নীতে সমাপ্তিং নবচূতবাণে।

নিবেশয়ামাস মধুর্দ্বিরেফান্‌ নামাক্ষরাণীব মনোভবস্য॥ ২৭

বর্ণপ্রকর্ষে সতি কর্ণিকারং দুনোতি নির্গন্ধতয়া স্ম চেতঃ।

প্রায়েণ সামগ্র৻বিধৌ গুণানাং পরাঙ্‌মুখা বিশ্বসৃজঃ প্রবৃত্তিঃ॥ ২৮

মৃগাঃ পিয়ালদ্রুমমঞ্জরীণাং রজঃকণৈর্বিঘ্নিতদৃষ্টিপাতাঃ।

মদোদ্ধতাঃ প্রত্যনিলং বিচেরুর্বনস্থলীর্মর্মরপত্রমোক্ষাঃ॥ ৩১

তং দেশমারোপিতপুষ্পচাপে রতিদ্বিতীয়ে মদনে প্রপন্নে।

কাষ্ঠাগতস্নেহরসানুবিদ্ধং দ্বন্দ্বানি ভাবং ক্রিয়য়া বিবব্রুঃ॥ ৩৫

মধু দ্বিরেফঃ কুসুমৈকপাত্রে পপৌ প্রিয়াং স্বামনুবর্তমানঃ।

শৃঙ্গেণ চ স্পর্শনিমীলিতাক্ষীং মৃগীমকণ্ডূয়ত কৃষ্ণসারঃ॥ ৩৬

...                  ...             ...

অর্ধোপভুক্তেন বিসেন জায়াং সম্ভাবয়ামাস রথাঙ্গনামা॥ ৩৭

গীতান্তরেষু শ্রমবারিলেশৈঃ কিঞ্চিৎ সমুচ্ছ্বাসিতপত্রলেখম্‌।

পুষ্পাসবাঘূর্ণিতনেত্রশোভি প্রিয়ামুখং কিম্পুরুষশ্চুচুম্বে॥ ৩৮

পর্যাপ্তপুষ্পস্তবকস্তনাভ্যঃ স্ফুরৎপ্রবালোষ্ঠমনোহরাভ্যঃ

লতাবধূভ্যস্তরবোহপ্যবাপুর্বিনম্রশাখাভুজবন্ধনানি॥ ৩৯

লতাগৃহদ্বারগতোহথ নন্দী বামপ্রকোষ্ঠার্পিতহেমবেত্রঃ।

মুখার্পিতৈকাঙ্গুলিসংজ্ঞয়ৈব মা চাপলায়েতি গণান্‌ ব্যনৈষীৎ॥ ৪১

নিষ্কম্পবৃক্ষং নিভৃতদ্বিরেফং মূকাণ্ডজং শান্তমৃগপ্রচারম্‌।

তচ্ছাসনাৎ কাননমেব সর্বং চিত্রার্পিতারম্ভ ইবাবতস্থে॥ ৪২

দৃষ্টিপ্রপাতং প্রতিহৃত্য তস্য কামঃ পুরঃশুক্রমিব প্রয়াণে।

প্রান্তেষু সংসক্তনমেরুশাখং ধ্যানাস্পদং ভূতপতের্বিবেশ। ৪৩

স দেবদারুদ্রুমবেদিকায়াং শার্দূলচর্মব্যবধানবত্যাম্‌।

আসীনমাসন্নশরীরপাতস্ত্রিয়ম্বকং সংযমিনং দদর্শ॥ ৪৪

পর্যঙ্কবন্ধস্থিরপূর্বকায়মৃজ্বায়তং সন্নমিতোভয়াংসম্‌।

উত্তানপাণিদ্বয়সন্নিবেশাৎ প্রফুল্লরাজীবমিবাঙ্কমধ্যে॥ ৪৫

ভুজঙ্গমোন্নদ্ধজটাকলাপং কর্ণাবসক্তদ্বিগুণাক্ষসূত্রম্‌।

কণ্ঠপ্রভাসঙ্গবিশেষনীলাং কৃষ্ণত্বচং গ্রন্থিমতীং দধানম্‌॥ ৪৬

কিঞ্চিৎপ্রকাশস্তিমিতোগ্রতারৈর্ভ্রূ বিক্রিয়ায়াং বিরতপ্রসঙ্গৈঃ।

নেত্রৈরবিস্পন্দিতক্ষ্ণমালৈর্লক্ষ্যীকৃতঘ্রাণমধ্যেময়ূখৈঃ॥ ৪৭

অবৃষ্টিসংরম্ভমিবাম্বুবাহমপামিবাধারমনুত্তরঙ্গম্‌।

অন্তশ্চরাণাং মরুতাং নিরোধান্নিবাতনিষ্কম্পমিব প্রদীপম্‌॥ ৪৮

কপালনেত্রান্তরলব্ধমার্গৈর্জ্যোতিঃপ্ররোহৈরুদিতৈঃ শিরস্তঃ।

মৃণালসূত্রাধিকসৌকুমার্যাং বালস্য লক্ষ্মীং গ্লপয়ন্তমিন্দোঃ॥ ৪৯

স্মরস্তথাভূতমযুগ্মনেত্রং পশ্যন্নদূরান্মনসাপ্যধৃষ্যম্‌।

নালক্ষয়ৎ সাধ্বসসন্নস্তঃ স্রস্তং শরং চাপমপি স্বহস্তাৎ॥ ৫১

নির্বাণভূয়িষ্ঠমথাস্য বীর্যং সন্ধুক্ষয়ন্তীব বপুর্গুণেন।

অনুপ্রয়াতা বনদেবতাভ্যামদৃশ্যত স্থাবররাজকন্যা॥ ৫২

অশোকনির্ভর্ৎসিতপদ্মরাগমাকৃষ্টহেমদ্যুতিকর্ণিকারম্‌।

মুক্তাকলাপীকৃতসিন্ধুবারং বসন্তপুষ্পভারণং বহন্তী॥ ৫৩

আবর্জিতা কিঞ্চিদিব স্তনাভ্যাং বাসো বসানা তরুণার্করাগম্‌।

পর্যাপ্তপুষ্পস্তবকাবনম্রা সঞ্চারিণী পল্লবিনী লতেব॥ ৫৪

স্রস্তাং নিতম্বাদবলম্বমানা পুনঃ পুনঃ কেশরদামকাঞ্চীম্‌।

ন্যাসীকৃতাং স্থানবিদা স্মরেণ মৌর্বীং দ্বিতীয়ামিব কার্মুকস্য॥ ৫৫

সুগন্ধিনিশ্বাসবিবৃদ্ধতৃষ্ণং বিম্বাধরাসন্নচরং দ্বিরেফম্‌।

প্রতিক্ষণং সম্ভ্রমলোলদৃষ্টির্লীলারবিন্দেন নিবারয়ন্তী॥ ৫৬

তাং বীক্ষ্য সর্বাবয়বানবদ্যাং রতেরপি হ্রীপদমাদধানাম্‌।

জিতেন্দ্রিয়ে শূলিনি পুষ্পচাপঃ স্বকার্যসিদ্ধিং পুনরাশশংস॥ ৫৭

ভবিষ্যতঃ পত্যুরুমা চ শম্ভোঃ সমাসসাদ প্রতিহারভূমিম্‌।

যোগাৎ স চান্তঃ পরমাত্মসংজ্ঞং দৃষ্‌ট্‌বা পরং জ্যোতিরুপাররাম॥ ৫৮

তস্মৈ শশংস প্রণিপত্য নন্দী শুশ্রূষয়া শৈলসুতামুপেতাম্‌।

প্রবেশয়ামাস চ ভর্তুরেনাং ভ্রূক্ষেপমাত্রানুমতপ্রবেশাম্‌॥ ৬০

তস্যাঃ সখীভ্যাং প্রণিপাতপূর্বং স্বহস্তলূনঃ শিশিরাত্যয়স্য।

ব্যকীর্যত ত্র৻ম্বকপাদমূলে পুষ্পোচ্চয়ঃ পল্লবভঙ্গভিন্নঃ॥ ৬১

উমাপি নীলালকমধ্যশোভি বিস্রংসয়ন্তী নবকর্ণিকারম্‌।

চকার কর্ণচ্যুতপল্লবেন মুর্ধ্‌না প্রণামং বৃষভধ্বজায়॥ ৬২

অনন্যভাজং পতিমাপ্নুহীতি সা তথ্যমেবাভিহিতা ভবেন।

ন হীশ্বরব্যাহৃতয়ঃ কদাচিৎ পুষ্ণন্তি লোকে বিপরীতমর্থম্‌॥ ৬৩

কামস্তু বাণাবসরং প্রতীক্ষ পতঙ্গবদ্‌বহ্নিমুখং বিবিক্ষুঃ।

উমাসমক্ষং হরবদ্ধলক্ষ্যঃ শরাসনজ্যাং মুহুরামমর্শ॥ ৬৪

অথোপনিন্যে গিরিশায় গৌরী তপস্বিনে তাম্ররুচা করেণ।

বিশোষিতাং ভানুমতো ময়ূখৈর্মন্দাকিনীপুষ্করবীজমালাম্‌॥ ৬৫

প্রতিগ্রহীতুং প্রণয়িপ্রিয়ত্বাৎ ত্রিলোচনস্তামুপচক্রমে চ।

সম্মোহনং নাম চ পুষ্পধন্বা ধনুষ্যমোঘং সমধত্ত বাণম্‌॥ ৬৬

হরস্তু কিঞ্চিৎ পরিলুপ্তধৈর্যশ্চন্দ্রোদয়ারম্ভ ইবাম্বুরাশিঃ।

উমামুখে বিম্বফলাধরোষ্ঠে ব্যাপারয়ামাস বিলোচনানি॥ ৬৭

বিবৃণ্‌বতী শৈলসুতাপি ভাবমঙ্গৈঃ স্ফূরদ্‌বালকদম্বকল্পৈঃ।

সাচীকৃতা চারুতরেণ তস্থৌ মুখেন পর্যস্তবিলোচনেন॥ ৬৮

অথেন্দ্রিয়ক্ষোভমযুগ্মনেত্রঃ পুনর্বশিত্বাদ্‌ বলবন্নিগৃহ্য।

হেতুং স্বচেতোবিকৃতের্দিদৃক্ষুর্দিশামুপান্তেষু সসর্জ দৃষ্টিম্‌॥ ৬৯

স দক্ষিণাপাঙ্গনিবিষ্টমুষ্টিং নতাংসমাকুঞ্চিতসব্যপাদম্‌।

দদর্শ চক্রীকৃতচারুচাপং প্রহর্তুমভ্যুদ্যতমাত্মযোনিম্‌॥ ৭০

তপঃপরামর্শবিবৃদ্ধমন্যোর্ভ্রূভঙ্গদুষ্প্রেক্ষ্যমুখস্য তস্য।

স্ফুরন্নুদর্চিঃ সহসা তৃতীয়াদক্ষ্ণঃ কৃশানুঃ কিল নিষ্পপাত॥ ৭১

ক্রোধং প্রভো সংহর সংহরেতি যাবদ্‌গিরঃ খে মরুতাং চরন্তি।

তাবৎ স বহ্নির্ভবনেত্রজন্মা ভস্মাবশেষং মদনং চকার॥ ৭২

 

              মদনদহন

 

সময় লঙ্ঘন করি নায়ক তপন

উত্তর অয়ন যবে করিল আশ্রয়

দক্ষিণের দিকবালা হেরিয়া তাহাই

ধীরে ধীরে ফেলিলেন বিষণ্ণ নিশ্বাস॥ ২৫

অমনি উঠিল ফুটি অশোকের ফুল,

অমনি পল্লবজালে ছাইল পাদপ॥ ২৬

নবীন পল্লব দিয়া রচি পক্ষগুলি

ভ্রমর-অক্ষরে লিখি মদনের নাম

নবচূতবাণচয় নির্মিল বসন্ত॥ ২৭

মনোহরবর্ণময় কর্ণিকার ফুল

ফুটিল, নাইক তাহে সুবাসের লেশ।

বিধাতা সকল গুণ দেন কি সবারে॥ ২৮

মর্মর শব্দ করি জীর্ণ পত্রগুলি

ফেলে ধীরে বনস্থলী বায়ুর পরশে,

মদোদ্ধত হরিণেরা করে বিচরণ

পিয়ালমঞ্জরী হতে রেণু ঝরি ঝরি

যাদের বিশাল আঁখি হয়েছে আকুল॥ ৩১

যখন মদন বসি বনশ্রীর কোলে

পুষ্পশরে গুণ তার করিল বন্ধন

স্নেহরসে মগ্ন হল যত ছিল প্রাণী॥ ৩৫

একই কুসুমপাত্রে ভ্রমর প্রিয়ার

পীত-অবশেষ মধু করিল গো পান।

স্পর্শনিমীলিতচক্ষু মৃগীর শরীরে

কৃষ্ণসার শৃঙ্গ দিয়া করিল আদর॥ ৩৬

আধেক মৃণাল খেয়ে সুখে চক্রবাক

আধেক তুলিয়া দিল প্রিয়ার মুখেতে॥ ৩৭

পুষ্পমদ পান করি ঢলঢল আঁখি

কিম্পুরুষললনারা গাইতেছে গান,

প্রিয়তম তাহাদের হইয়া বিহ্বল

থেকে থেকে প্রিয়ামুখ করিছে চুম্বন॥ ৩৮

কুসুমস্তবকগুলি স্তন যাহাদের

নবকিশলয়গুলি ওষ্ঠ মনোহর

বাঁধিল সে লতিকারা বাহুপাশ দিয়া

নম্রশাখা তরুদের গাঢ় আলিঙ্গনে॥ ৩৯

লতাগৃহদ্বারে নন্দী করি আগমন

বাম করতলে এক হেমবেত্র ধরি

অধরে অঙ্গুলি দিয়া করিল সঙ্কেত॥ ৪১

[মনি] নিষ্কম্প বৃক্ষ, নিভৃত ভ্রমর,

... হইল মূক, শান্ত হল মৃগ

... ... ... কাঁপিল সঙ্কেতে॥ ৪২

নন্দীর সতর্ক আঁখি এড়ায়ে মদন

নমেরু গাছের তলে লুকায়ে লুকায়ে

শিবের সমাধিস্থান করিল দর্শন॥ ৪৩

দেখিল সে-- মহাদেব শার্দূল-আসনে

দেবদারুবেদী-'পরে আছেন বসিয়া॥ ৪৪

উন্নত প্রশস্ত অতি স্থির বক্ষ তাঁর,

শোভিতেছে সন্নমিত দৃঢ় স্কন্ধদেশ,

কোলে তাঁর হাত দুটি রয়েছে অর্পিত

প্রফুল্ল পদ্মের মতো শোভিছে কেমন॥ ৪৫

বদ্ধ তাঁর জটাজাল ভুজঙ্গবন্ধনে।

কর্ণে তাঁর অক্ষসূত্র রয়েছে জড়িত--

গ্রন্থিবদ্ধ কৃষ্ণসারহরিণ-অজিন

ধরিয়াছে নীলবর্ণ কণ্ঠের প্রভায়॥ ৪৬

ঈষৎ প্রকাশে যার স্তিমিত তারকা,

শান্ত যার ভ্রূযুগল অচল নিস্পন্দ,

অকম্পিত পক্ষ্ণমালা ভেদ করি যার

বিকীরিত হইতেছে শান্ত জ্যোতিরাশি

সে নেত্র নাসাগ্রভাগ করিছে বীক্ষণ॥ ৪৭

অবৃষ্টিসংরম্ভস্তব্ধ মেঘের মতন

তরঙ্গবিহীন শান্ত সমুদ্রের মতো

নির্বাতনিষ্কম্প অগ্নি-শিখার সমান

মহাদেব শান্তভাবে ধ্যেয়ানে নিমগ্ন॥ ৪৮

মস্তক করিয়া ভেদ উঠিয়াছে জ্যোতি

কপালের শশধরে করিয়া মলিন॥ ৪৯

মনের অগম্য সেই মহাদেবে হেরি

মদনের সকম্পিত হস্তদ্বয় হতে

থর থর কাঁপি খসি পড়িল ধুনক॥ ৫১

হেনকালে বনদেবীদের সাথে সাথে

উমা পশিলেন সেই বনস্থলীমাঝে--

হেরি সে অতুলরূপ পাইয়া আশ্বাস

মদন তুলিয়া নিল ধনুর্বাণ তার॥ ৫২

পদ্মরাগ মণি জিনি অশোককুসুম

কনকবরন জিনি কর্ণিকার ফুল

মুকুতাকলাপসম সিন্ধুবারমালা

আরণ্য বসন্তফুলে ...  ...  ...

...  ...  ...  ...  ... ...॥ ৫৩

স্তনভারে নতকায়া ঈষৎ অমনি

অবনত কুসুমের মঞ্জরীর ভারে

সঞ্চারিণী পল্লবিনী লতাটির মতো॥ ৫৪

থেকে থেকে খুলে পড়ে বকুলমেখলা,

বার বার হাতে করে রাখেন আটকি॥ ৫৫

ভ্রমর তৃষিত হয়ে নিঃশ্বাসসৌরভে

বিম্ব-অধরের কাছে করে বিচরণ,

সম্ভ্রমে বিলোলদৃষ্টি উমা প্রতিক্ষণ

লীলাশতদল নাড়ি দিতেছেন বাধা॥ ৫৬

যাঁর রূপরাশি হেরি রতি লজ্জা পায়

অকলঙ্ক সে উমারে করি নিরীক্ষণ

জিতেন্দ্রিয় শূলীরেও বাণ সন্ধানিতে

মদন হৃদয়ে নিজে বাঁধিল সাহস॥ ৫৭

শৈলসুতা ভবিষ্যৎপতি শঙ্করের

লতাগৃহদ্বার-মাঝে করিলা প্রবেশ।

পরমাত্মাসন্দর্শনে পরিতৃপ্ত হয়ে

যোগ ভাঙি উঠিলেন মহেশ তখন॥ ৫৮

নন্দী তাঁর পদতলে প্রণিপাত করি

উমা-আগমনবার্তা করিল জ্ঞাপন।

ঈষৎ ভ্রূক্ষেপমাত্রে মহেশ অমনি

পার্বতীরে প্রবেশিতে দিলা অনুমতি॥ ৬০

উমার স্বহস্তে তুলা পল্লবে-জড়িত

হিমসিক্ত ফুলগুলি অর্পি পদতলে

সখীগণ মহাদেবে করিল প্রণাম॥ ৬১

উমাও সে পদতলে হইলেন নত--

চঞ্চল অলক হতে পড়িল খসিয়া

নবকর্ণিকার ফুল মহেশচরণে॥ ৬২

[অন্য] নারী-অনুরক্ত নহে যেই জন

[হেন] পতি লাভ করো আশীষিলা দেব

... [ক] থার কভু হয় না অন্যথা॥ ৬৩

... [অ] বসর প্রতীক্ষা করিয়া

...  ...  ... পতঙ্গের মতো

...  ...  ...  ...  ... করি॥ ৬৪

পদ্মবীজমালা লয়ে আরক্তিম করে

মহেশের হস্তে উমা করিলা অর্পণ॥ ৬৫

সম্মোহন পুষ্পধনু করিয়া যোজনা

অমনি শিবের প্রতি হানিলা মদন॥ ৬৬

অমনি হইলা হর ঈষৎ অধীর

সবেমাত্র চন্দ্রোদয়ে অম্বুরাশি-সম,

উমার মুখের 'পরে মহেশ তখন

একেবারে ত্রিনয়ন করিলা নিবেশ॥ ৬৭

অমনি উমার দেহ উঠিল শিহরি,

সরমবিভ্রান্ত নেত্রে লাজনম্র মুখে

পার্বতী মাটির পানে রহিলা চাহিয়া॥ ৬৮

মুহূর্তে ইন্দ্রিয়ক্ষোভ করিয়া দমন

বিকৃতির হেতু কোথা দেখিবার তরে

দিশে দিশে করিলেন ত্রিনয়নপাত॥ ৬৯

দেখিলা জ্যাবদ্ধমুষ্টি সশর মদন

তাঁর [প্রতি] লক্ষ নিজ করেছে নিবেশ॥ ৭০

তপস্যার বিঘ্ন হেরি ক্রুদ্ধ অতিশয়

ভ্রূভঙ্গদুষ্প্রেক্ষ্যমুখ মহাতপস্বীর

তৃতীয় নয়ন হতে ছুটিল অনল॥ ৭১

ক্রোধ সম্বরহ প্রভু ক্রোধ সম্বরহ

স্বর্গ হতে দেবতারা কহিতে কহিতে

হইল মদনতনু ভস্ম-অবশেষ॥ ৭২

 

কুমারসম্ভব

সূচনা

 

     অস্ত্যুত্তরস্যাং দিশি দেবতাত্মা

           হিমালয়ো নাম নগাধিরাজঃ।

     পূর্বাপরৌ তোয়নিধী বগাহ্য

           স্থিতঃ পৃথিব্যা ইব মানদণ্ডঃ॥

                                  --কুমারসম্ভব, ১| ১

 

কুমারসম্ভব

সূচনা

 

উত্তর দিগন্ত ব্যাপি

      দেবতাত্মা হিমাদ্রি বিরাজে--

দুই প্রান্তে দুই সিন্ধু,

      মানদণ্ড যেন তারি মাঝে॥

 

রঘুবংশ॥ সূচনা

 

বাগর্থাবিব সম্পৃক্তৌ বাগর্থপ্রতিপত্তয়ে।

জগতঃ পিতরৌ বন্দে পার্বতীপরমেশ্বরৌ॥ ১

ক্ব সূর্যপ্রভবো বংশঃ ক্ব চাল্পবিষয়া মতিঃ।

তিতীর্ষুর্দুস্তরং মোহাদুড়ুপেনাস্মি সাগরম্‌॥ ২

মন্দঃ কবিযশঃপ্রার্থী গমিষ্যাম্যুপহাস্যতাম্‌।

প্রাংশুলভ্যে ফলে লোভাদুদ্‌বাহুরিব বামনঃ॥ ৩

অথবা কৃতবাগ্‌দ্বারে বংশেহস্মিন্‌ পূর্বসূরিভিঃ।

মণৌ বজ্রসমুৎকীর্ণে সূত্রস্যেবাস্তি মে গতিঃ॥ ৪

সোহহমাজন্মশুদ্ধানাম্‌ আফলোদয়কর্মণাম্‌।

আসমুদ্রক্ষিতীশানাম্‌ আনাকরথবর্ত্মনাম॥ ৫

যথাবিধিহুতাগ্নীনাং যথাকামার্চিতার্থিনাম্‌।

যথাপরাধদণ্ডানাং যথাকালপ্রবোধিনাম্‌॥ ৬

ত্যাগায় সম্ভৃতার্থানাং সত্যায় মিতভাষিণাম্‌।

যশসে বিজিগীষূণাং প্রজায়ৈ গৃহমেধিনাম্‌॥ ৭

শৈশবেহভ্যস্তবিদ্যানাং যৌবনে বিষয়ৈষিণাম্‌।

বার্ধক্যে মুনিবৃত্তীনাং যোগেনান্তে তনুত্যজাম্‌॥ ৮

রঘূণামন্বয়ং বক্ষ্যে তনুবাগ্‌বিভবোহপি সন্‌।

তদ্‌গুণৈঃ কর্ণমাগত্য চাপলায় প্রণোদিতঃ॥ ৯

তং সন্তঃ শ্রোতুমর্হন্তি সদসদ্‌ব্যক্তিহেতবঃ।

হেম্নঃ সংলক্ষ্যতে হ্যগ্নৌ বিশুদ্ধিঃ শ্যামিকাপি বা॥ ১০

                             --রঘুবংশ, ১| ১-১০

 

রঘুবংশ ॥ সূচনা

 

বাক্য আর অর্থ -সম সম্মিলিত শিবপার্বতীরে

বাগর্থসিদ্ধির তরে বন্দনা করিনু নতশিরে॥ ১

কোথা সূর্যবংশ, কোথা অল্পমতি আমার মতন--

ভেলায় দুস্তর সিন্ধু তরিবারে বৃথা আকিঞ্চন॥ ২

বামন হাসায় লোক হাত বাড়াইয়া উচ্চ ডালে,

মন্দ কবিযশ চায়-- সেই দশা তাহারও কপালে॥ ৩

কিম্বা পূর্ব পূর্ব কবি রচি গেলা যেথা বাক্যদ্বার,

বজ্রবিদ্ধ মণি -মধ্যে সূত্রসম প্রবেশ আমার॥ ৪

আজন্ম যাঁহারা শুদ্ধ, কর্ম যাঁরা নিয়ে যান ফলে,

সসাগররাজ্যেশ্বর, ধরা হতে স্বর্গে রথ চলে--

যথাবিধি হোম যাগ, যথাকাম অতিথি অর্চিত,

যথাকালে জাগরণ, অপরাধে দণ্ড যথোচিত--

দানহেতু ধনার্জন, মিতভাষা সত্যের কারণ,

যশ-আশে দিগ্বিজয়, পুত্র লাগি কলত্রবরণ--

শৈশবে বিদ্যার চর্চা, যৌবনে বিষয়-অভিলাষ

বার্ধক্যে মুনির ব্রত, যোগবলে অন্তে দেহ-নাশ॥ ৫-৮

এ হেন বংশের কীর্তি বর্ণিবারে নাহি বাক্যবল,

অতুল সে গুণরাশি কর্ণে আসি করিল চঞ্চল॥ ৯

পণ্ডিতে শুনিবে কথা ভালোমন্দ-বিচারে-নিপুণ--

সোনা খাঁটি কিম্বা ঝুঁটা সে পরীক্ষা করিবে আগুন॥ ১০

 

             রঘুবংশ॥ অষ্টম সর্গ

 

কৃতবত্যসি নাবধীরণা-

মপরাদ্ধেহপি যদা চিরং ময়ি।

কথমেকপদে নিরাগসং

জনমাভাষ্যমিমং ন মন্যসে॥ ৪৮

মনসাপি ন বিপ্রিয়ং ময়া

কৃতপূর্বং তব কিং জহাসি মাম্‌।

ননু শব্দপতিঃ ক্ষিতেরহং

ত্বয়ি মে ভাবনিবন্ধনা রতিঃ॥ ৫২

কুসুমোৎখচিতান্‌ বলীভৃতশ্‌-

চলয়ন্‌ ভৃঙ্গরুচস্তবালকান্‌।

করভোরু করোতি মারুতস্‌-

ত্বদুপাবর্তনশঙ্কি মে মনঃ॥ ৫৩

তদপোহিতুমর্হসি প্রিয়ে

প্রতিবোধেন বিষাদমাশু মে।

জ্বলিতেন গুহাগতং তমস্‌-

তুহিনাদ্রেরিব নক্তমোষধিঃ॥ ৫৪

ইদমুচ্ছ্বসিতালকং মুখং

তব বিশ্রান্তকথং দুনোতি মাম্‌।

নিশি সুপ্তমিবৈকপঙ্কজং

বিরতাভ্যন্তরষট্‌পদস্বনম্‌॥ ৫৫

শশিনং পুনরেতি শর্বরী

দয়িতা দ্বন্দ্বচরং পতত্রিণম্‌।

ইতি তৌ বিরহান্তরক্ষমৌ

কথমত্যন্তগতা ন মাং দহেঃ॥ ৫৬

নবপল্লবসংস্তরেহপি তে

মৃদু দূয়েত যদঙ্গমর্পিতম্‌

তদিদং বিষহিষ্যতে কথং

বদ বামোরু চিতাধিরোহণম্‌॥ ৫৭

ইয়মপ্রতিবোধশায়িনীং।

রশনা ত্বাং প্রথমা রহঃসখী।

গতিবিভ্রমসাদনীরবা

ন শুচা নানুমৃতেব লক্ষ্যতে॥ ৫৮

সমদুঃখসুখঃ সখীজনঃ

প্রতিপচ্চন্দ্রনিভোহয়মাত্মজঃ।

অহমেকরসস্তথাপি তে

ব্যবসায়ঃ প্রতিপত্তিনিষ্ঠুরঃ॥ ৬৫

ধৃতিরস্তমিতা রতিশ্চ্যুতা

বিরতং গেয়মৃতুর্নিরুৎসবঃ।

গতমাভরণপ্রয়োজনং

পরিশূন্যং শয়নীয়মদ্য মে॥ ৬৬

গৃহিণী সচিবঃ সখী মিথঃ

প্রিয়শিষ্যা ললিতে কলাবিধৌ।

করুণাবিমুখেন মৃত্যুনা

হরতা ত্বাং বদ কিং ন মে হৃতম্‌॥ ৬৭

বিভবেহপি সতি ত্বয়া বিনা

সুখমেতাবদজস্য গণ্যতাম্‌।

অহৃতস্য বিলোভনান্তরৈর্‌--

মম সর্বে বিষয়াস্‌ত্‌বদাশ্রয়াঃ॥ ৬৯

 

             অজবিলাপ

 

বহু অপরাধে তবুও আমার 'পর

ভুলেও কখনো কর নাই অনাদর,

তবু কেন আজ কোনো অপরাধ বিনা

মোর প্রতি তুমি রয়েছ বাক্যহীনা। ৪৮

মনেও আনি নি তব অপ্রিয় কভু

মোরে ফেলে কেন চলে গেলে তুমি তবু!

পৃথিবীর আমি নামেই পাত্র পতি,

তোমাতেই মোর ভাবে নিবদ্ধ রতি॥ ৫২

কুসুমে খচিত কুঞ্চিত কালো কেশে

মন্দপবন কাঁপায় যখন এসে,

হে সুতনু, তব প্রাণ ফিরে এল ব'লে

থেকে থেকে মোর দুরাশায় হিয়া দোলে॥ ৫৩

হে প্রেয়সী, তবে উচিত তোমার ত্বরা

জাগিয়া আমার বিষাদ বিনাশ করা

রজনী আসিলে হিমচলগুহাতলে

আঁধার নাশিয়া ওষধি যেমন জ্বলে॥ ৫৪

ও মুখে অলক দোলে যে [১] মারুতভরে,

তবু কথা নাই বুক ফাটে তারি তরে--

যেমন নিশায় কমল ঘুমায়ে রহে,

অন্তরে তার ভ্রমর কথা না কহে॥ ৫৫

[অলক তোমার কভু মৃদু বায়ুভরে

বিচলিয়া উঠে মৌন মুখের 'পরে

শতদল যেন অবসান হলে দিন

নিশানিমীলিত অলিগুঞ্জনহীন॥ ৫৫] [২]

শর্বরী পুন ফিরে পায় শশধরে

চকাচকি পুন মিলে বিচ্ছেদ-পরে,

বিরহ তাহারা মিলনের আশে সহে--

চিরবিচ্ছেদ আমারে যে আজ দহে॥ ৫৬

শয়ন রচিত হত পল্লবে নব,

তবু দুখ পেত কোমল অঙ্গ তব।

আজ সেই তনু চিতা-আরোহণ [৩] আহা

কেমনে সহিবে, কেমনে সহিব তাহা॥ ৫৭

এ মেখলা [৪] তব প্রথমা রহঃসখী

গতিহারা দেহে নিক্বণ হারালো কি?

মনে হয় যেন সেও বুঝি তব শোকে

তোমারি সঙ্গে গিয়েছে মৃত্যুলোকে॥ ৫৮

সমসুখদুখ তব সঙ্গিনীজন,

প্রতিপদচাঁদ তব আত্মজধন,

তব রস মোর জীবনে করেছি সার--

নিঠুর, তবুও একি তব ব্যবহার॥ ৬৫

ধৃতি হল দূর, রতি শুধু স্মৃতিলীন,

গান হল শেষ, ঋতু উৎসবহীন,

আভরণে মোর প্রয়োজন হল গত--

শয়ন শূন্য চিরদিবসের মতো॥ ৬৬

গৃহিণী, সচিব, রহস্যসখী মম,

ললিতকলায় ছিলে যে শিষ্যাসম--

করুণাবিমুখ মৃত্যু তোমারে নিয়ে

বলো গো আমার কি না সে হরিল প্রিয়ে॥ ৬৭

তোমা বিনা আজ রাজসম্পদ ধনে

সুখ বলি' অজ গণ্য না করে মনে।

কোনো প্রলোভন রোচে না আমার কাছে,

আমার যা-কিছু তোমারে জড়ায়ে আছে॥ ৬৯

 

             মেঘদূত॥ সূচনা

                 পূর্বমেঘ

 

কশ্চিৎ কান্তাবিরহগুরুণা স্বাধিকারপ্রমত্তঃ

শাপেনাস্তংগমিতমহিমা বর্ষভোগ্যেন ভর্তুঃ।

যক্ষশ্চক্রে জনকতনয়াস্নানপুণ্যোদকেষু

স্নিগ্ধচ্ছায়াতরুষু বসতিং রামগির্যাশ্রমেষু॥ ১

তস্মিন্নদ্রৌ কতিচিতবলাবিপ্রযুক্তঃ স কামী

নীত্বা মাসান্‌ কনকবলয়ভ্রংশরিক্তপ্রকোষ্ঠঃ।

আষাঢ়স্য প্রথমদিবসে মেঘমাশ্লিষ্টসানুং

বপ্রক্রীড়াপরিণতগজপ্রেক্ষণীয়ং দদর্শ॥ ২

 

            মেঘদূত॥ সূচনা

 

যক্ষ সে কোনোজনা      আছিল আনমনা,

        সেবার অপরাধে প্রভুশাপে

হয়েছে বিলয়গত       মহিমা ছিল যত--

        বরষকাল যাপে দুখতাপে।

নির্জন রামগিরি-       শিখরে মরে ফিরি

        একাকী দূরবাসী প্রিয়াহারা,

যেথায় শীতল ছায়       ঝরনা বহি যায়

        সীতার স্নানপূত জলধারা॥ ১

মাস পরে কাটে মাসে,   প্রবাসে করে বাস

        প্রেয়সীবিচ্ছেদে বিমলিন।

কনকবলয়-খসা    বাহুর ক্ষীণ দশা,

        বিরহদুখে হল বলহীন।

একদা আষাঢ় মাসে   প্রথম দিন আসে,

        যক্ষ নিরখিল গিরি-'পর

ঘনঘোর মেঘ এসে লেগেছে সানুদেশে,

        দন্ত হানে যেন করিবর॥ ২

 

                মেঘদূত ॥ সূচনা

 

অভাগা যক্ষ যবে

        করিল কাজে হেলা

                  কুবের তাই তারে দিলেন শাপ--

নির্বাসনে সে রহি

        প্রেয়সী-বিচ্ছেদে

                  বর্ষ ভরি সবে দারুণ জ্বালা।

গেল চলি রামগিরি-

        শিখর-আশ্রমে

                  হারায়ে সহজাত মহিমা তার,

সেখানে পাদপরাজি

        স্নিগ্ধ ছায়াবৃত

                  সীতার স্নানে পূত সলিলধার॥ ১

 

            মেঘদূত ॥ সূচনা

 

কোনো-এক যক্ষ সে

    প্রভুর সেবাকাজে

         প্রমাদ ঘটাইল

              উন্মনা,

তাই দেবতার শাপে

    অস্তগত হল

         মহিমা-সম্পদ্‌

              যত-কিছু ॥ ১

কান্তাবিরহগুরু

    দুঃখদিনগুলি

         বর্ষকাল-তরে

              যাপে একা,

স্নিগ্ধপাদপছায়া

    সীতার-স্নানজলে-

         পুণ্য রামগিরি-

              আশ্রমে॥ ২

 

                   ১

ন খলু ন খলু বাণঃ সন্নিপাত্যোহয়মস্মিন্‌

মৃদুনি মৃগশরীরে পুষ্পরাশাবিবাগ্নিঃ।

ক্ব বত হরিণকাণাং জীবিতঞ্চাতিলোলং

ক্ব চ নিশিতনিপাতা বজ্রসারাঃ শরাস্তে।

                               --অভিজ্ঞানশকুন্তল, ১| ১০

 

                ১

মৃদু এ মৃগদেহে

      মেরো না শর।

আগুন দেবে কে হে

      ফুলের 'পর!

কোথা হে মহারাজ

      মৃগের প্রাণ--

কোথায় যেন বাজ

      তোমার বাণ!

 

                   ২

সরসিজমনুবিদ্ধং শৈবলেনাপি রম্যং

মলিনমপি হিমাংশোর্লক্ষ্ণ লক্ষ্মীং তনোতি।

ইয়মধিকমনোজ্ঞা বল্কলেনাপি তন্বী

কিমিব হি মধুরাণাং মণ্ডনং নাকৃতীনাম্‌॥

                               --অভিজ্ঞানশকুন্তল, ১| ১৮

 

         ২

কমল শৈবালে ঢাকা তবু রমণীয়,

শশাঙ্ক কলঙ্কী তবু লক্ষ্মীর সে প্রিয়।

এ নারী বল্কল পরি আরো মনোহর--

কী নহে ভূষণ তার যে জন সুন্দর!

[কমল শেয়ালা-মাখা তবু মনোহর,

চাঁদেতে কলঙ্করেখা তথাপি সুন্দর,

বল্কলও মনোজ্ঞ অতি রূপসীর গায়,

মধুর মুরতি যেই কী না সাজে তায়?] ২

 

                   ৩

অধরঃ কিসলয়রাগঃ কোমলবিটপানুকারিণৌ বাহূ।

কুসুমমিব লোভনীয়ং যৌবনমঙ্গেষু সন্নদ্ধম্‌ ॥

                               --অভিজ্ঞানশকুন্তল, ১| ১৯

 

              ৩

অধর কিসলয়-রাঙিমা-আঁকা,

যুগল বাহু যেন কোমল শাখা,

হৃদয়-লোভনীয় কুসুম-হেন

তনুতে যৌবন ফুটেছে যেন।

 

                   ৪

গচ্ছতি পুরঃ শরীরং ধাবতি পশ্চাদসংস্থিতং চেতঃ।

চীনাংশুকমিব কেতোঃ প্রতিবাতং নীয়মানস্য ॥

                               --অভিজ্ঞানশকুন্তল, ১| ৩১

 

         ৪

শরীর সে ধীরে ধীরে যাইতেছে আগে,

অধীর হৃদয় কিন্তু যায় পিছু-বাগে--

ধ্বজা লয়ে গেলে যথা প্রতিকূল বাতে

পতাকা [৫] তাহার মুখ ফিরায় পশ্চাতে ॥

 

              ৫

পাতুং ন প্রথমং ব্যবস্যতি জলং যুষ্মাস্বপীতেষু যা

নাদত্তে প্রিয়মণ্ডনাপি ভবতাং স্নেহেন যা পল্লবম্‌।

আদ্যে বঃ কুসুমপ্রসূতিসময়ে যস্যা ভবত্যুৎসবং

সেয়ং যাতি শকুন্তলা পতিগৃহং সর্বৈরনুজ্ঞায়তাম্‌॥

                             --অভিজ্ঞানশকুন্তল, ৪| ৯

 

              ৫

তোমাদের জল না করি দান

যে আগে জল না করিত পান;

সাধ ছিল যার সাজিতে, তবু

স্নেহে পাতাটি না ছিঁড়িত কভু;

তোমাদের ফুল ফুটিত যবে

যে জন মাতিত মহোৎসবে;

পতিগৃহে সেই বালিকা যায়,

তোমরা সকলে দেহ বিদায়!

 

              ৬

রম্যান্তরঃ কমলিনীহরিতৈঃ সরোভিশ্‌-

ছায়াদ্রুমৈর্নিয়মিতার্কমরীচিতাপঃ।

ভূয়াৎ কুশেশয়রজোমৃদুরেণুরস্যাঃ

শান্তানুকূলপবনশ্চ শিবশ্চ পন্থাঃ॥

                             --অভিজ্ঞানশকুন্তল, ৪| ১১

 

              ৬

মাঝে মাঝে পদ্মবনে

পথ তব হোক মনোহর।

ছায়াস্নিগ্ধ তরুরাজি

ঢেকে দিক তীব্র রবিকর।

হোক তব পথধূলি

অতিমৃদু পুষ্পধূলিনিভ।

হোক বায়ু অনুকূল

শান্তিময়, পন্থা হোক শিব।

 

              ৭

উগ্‌গলিঅদব্‌ভকঅলা মঈ পরিচ্চত্তণচ্চণা মোরী।

আেসরিঅপণ্ডুপত্তা মুঅন্তি অস্‌সূ বিঅ লদাআে॥

                             --অভিজ্ঞানশকুন্তল, ৪| ১২

 

              ৭

মৃগের গলি পড়ে মুখের তৃণ,

ময়ূর নাচে না যে আর,

খসিয়া পড়ে পাতা লতিকা হতে

যেন সে আঁখিজলধার।

 

              ৮

যস্য ত্বয়া ব্রণবিরোপণমিঙ্গুদীনাং

তৈলং ন্যষিচ্যত মুখে কুশসূচিবিদ্ধে।

শ্যামাকমুষ্টিপরিবধিতকো জহাতি

সোহয়ং ন পুত্রকৃতকঃ পদবীং মৃগস্তে॥

                             --অভিজ্ঞানশকুন্তল, ৪| ১৪

 

              ৮

ইঙ্গুদীর তৈল দিতে স্নেহসহকারে

কুশক্ষত হলে মুখ যার,

শ্যামাধান্যমুষ্টি দিয়ে পালিয়াছ যারে,

এই মৃগ পুত্র সে তোমার।

 

              ৯

শুশ্রূয়স্ব গুরূন্‌ কুরুপ্রিয়সখীবৃত্তিং সপত্নীজনে

ভর্তুর্বিপ্রকৃতাপি রোষণতয়া মাস্ম প্রতীপং গমঃ।

ভূয়িষ্ঠং ভব দক্ষিণা পরিজনে ভাগ্যেষ্বনুৎসেকিনী

যান্তোবং গৃহিণীপদং যুবতয়ো বামাঃ কুলস্যাধয়ঃ॥

                             --অভিজ্ঞানশকুন্তল, ৪| ১৮

 

              ৯

সেবা কোরো গুরুজনে, সপত্নীরে জেনো সখীসম,

অপরাধী পতি-'পরে রোষভরে হোয়ো না নির্মম।

পরিজনে দয়া রেখো, সৌভাগ্যে হোয়ো না আত্মহারা--

গৃহিণীর এই ধর্ম; কুলনাশী অন্যরূপ যারা।

 

              ১০

অহিণঅমহুলোলুবো তুমং তহ পরিচুম্বিঅ চূঅমঞ্জরিং।

কমলবসইমেত্তনিব্বুআে মহুঅর বিসুমরিআে সি ণং কহং॥

                             --অভিজ্ঞানশকুন্তল, ৫| ১০

 

              ১০

নবমধুলোভী ওগো মধুকর, [৬]

চূতমঞ্জরী চুমি

কমলনিবাসে যে প্রীতি পেয়েছ

কেমনে ভুলিলে তুমি।

 

              ১১

নেপথ্যপরিগতায়াশ্চক্ষুর্দর্শনসমুৎসুকং তস্যাং।

সংহর্তুমধীরতয়া ব্যবসিতমিব মে তিরস্করণীম্‌॥

                             --মালবিকাগ্নিমিত্র, ২| ১

 

              ১১

নেপথ্যপরিগত প্রিয়া সে,

রূপখানি দর্শন তিয়াসে

আঁখি মোর উৎসুক দশাতে

তিরস্করণী চাহে খসাতে॥

 

              ১২

উৎপৎস্যতেহস্তি মম কোহপি সমানধর্মা।

কালোহ্যয়ং নিরবধির্বিপুলা চ পৃথ্বী।

                             --মালতীমাধব-প্রস্তাবনা

 

              ১২

কী জানি মিলিতে পারে মম সমতুল--

সময় অসীম আর পৃথিবী বিপুল।

 

              ১৩

লৌকিকানাং হি সাধূনামর্থং বাগনুবর্ততে।

ঋষীণাং পুনরাদ্যানাং বাচমর্থোহনুধাবতি॥

                             --উত্তররামচরিত, ১| ১০

 

              ১৩

অর্থ পরে বাক্য সরে

লৌকিক যে সাধুগণ তাঁদের কথায়।

আদ্য ঋষিদের বাক্যে

বাক্যগুলি আগে যায়, অর্থ পিছে ধায়॥

 

              ১৪

অকিঞ্চিদপি কুর্বাণঃ সৌখ্যৈর্দুঃখান্যপোহতি।

তত্তস্য কিমপি দ্রব্যং যো হি যস্য প্রিয়ো জনঃ॥

                             --উত্তররামচরিত, ৬| ৫

 

              ১৪

কিছুই করে না, শুধু

সখ্য দিয়ে হরে দুঃখগ্লানি--

যে যাহার প্রিয়জন

সে তাহার কেমন কী জানি।

 

টীকা

         ১   বৈজয়ন্তী পত্রিকা-অনুযায়ী পাঠ

         ২   পূর্ববর্তী শ্লোকানুবাদেরই রূপান্তর

         ৩   পাণ্ডুলিপি : চিতাশয্যায়

         ৪   পাঠান্তর : রশনা

         ৫   পাঠান্তর : অংশুক

         ৬   পাঠান্তর : অভিনবধুমলোভী মধুকর