২৬ চৈত্র, ১৩৩৯


 

প্রত্যুত্তর


বেলকুঁড়ি-গাঁথা মালা

               দিয়েছিনু হাতে,

          সে মালা কি ফুটেছিল রাতে?

               দিনান্তের ম্লান মৌনখানি

     নির্জন আঁধারে সে কি ভরেছিল বাণী?

              অবসন্ন গোধূলির পাণ্ডু নীলিমায়

          লিখে গেল দিগন্তসীমায়

               অস্তসূর্য--স্বর্ণাক্ষরধারা।

          রাত্রি কি উত্তরে তারি রচেছিল তারা?

     পথিক বাজায়ে গেল পথে-চলা বাঁশি,

          ঘরে সে কি উঠেছে উচ্ছ্বাসি?

               কোণে কোণে ফিরিছে কোথায়

          দূরের বেদনখানি ঘরের ব্যথায়!

 

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •