জোড়াসাঁকো, ১৩ নভেম্বর, ১৯৪০


 


মনে হয় হেমন্তের দুর্ভাষার কুজ্ঝটিকা-পানে

আলোকের কী যেন ভর্ৎসনা

দিগন্তের মূঢ়তারে তুলিছে তর্জনী।

পাণ্ডুবর্ণ হয়ে আসে সূর্যোদয়

আকাশের ভালে,

লজ্জা ঘনীভূত হয়,

হিমসিক্ত অরণ্যছায়ায়

স্তব্ধ হয় পাখিদের গান।

 

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •