রাগ: যোগিয়া-কীর্তন

তাল: একতাল

রচনাকাল (বঙ্গাব্দ): 1293

রচনাকাল (খৃষ্টাব্দ): 1887

৬৭

      নয়ন তোমারে পায় না দেখিতে, রয়েছ নয়নে নয়নে।  ( নয়নের নয়ন ! )

      হৃদয় তোমারে পায় না জানিতে, হৃদয়ে রয়েছ গোপনে।  ( হৃদয়বিহারী ! )

      বাসনার বশে মন অবিরত  ধায় দশ দিশে পাগলের মতো,

      স্থির-আঁখি তুমি মরমে সতত  জাগিছ শয়নে স্বপনে। 

    ( তোমার বিরাম নাই,  তুমি অবিরাম জাগিছ শয়নে স্বপনে।

      তোমার নিমেষ নাই,  তুমি অনিমেষ জাগিছ শয়নে স্বপনে। )

      সবাই ছেড়েছে, নাই যার কেহ,  তুমি আছ তার, আছে তব স্নেহ–

      নিরাশ্রয় জন পথ যার গেহ  সেও আছে তব ভবনে। 

    ( যে পথের ভিখারি সেও আছে তব ভবনে।

      যার কেহ কোথাও নেই  সেও আছে তব ভবনে। ) 

      তুমি ছাড়া কেহ সাথি নাই আর,  সমুখে অনন্ত জীবনবিস্তার–

      কালপারাবার করিতেছ পার  কেহ নাহি জানে কেমনে। 

    ( তরী বহে নিয়ে যাও কেহ নাহি জানে কেমনে।

      জীবনতরী বহে নিয়ে যাও কেহ নাহি জানে কেমনে। ) 

      জানি শুধু তুমি আছ তাই আছি,  তুমি প্রাণময় তাই আমি বাঁচি,

      যত পাই তোমায় আরো তত যাচি– যত জানি তত জানি নে।

    ( জেনে শেষ মেলে না–মন হার মানে হে। )

      জানি আমি তোমায় পাব নিরন্তর  লোক-লোকান্তরে যুগ-যুগান্তর–

      তুমি আর আমি মাঝে কেহ নাই,  কোনো বাধা নাই ভুবনে। 

    ( তোমার আমার মাঝে কোনো বাধা নাই ভুবনে। )

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Renditions

 

 

আপনিও যোগ করুন এই গানের একটি নতুন নিবেদন । পদ্ধতিটি খুবই সহজ । গানটি YouTube থেকে খুঁজে নিন । ভিডিওর URLটি নিচের টেক্সটবক্সে লিখুন বা কপি-পেস্ট করে দিন । Submit বোতামটি টিপে দিন । ব্যাস !

You can also recommend a rendition of this song. Process is simple. Please find the song rendition in YouTube. Copy the URL. Paste it at the textbox below. Press Submit.