শান্তিনিকেতন, ১৬। ৩। ৩৯


 

ভূমিকা


স্মৃতিরে আকার দিয়ে আঁকা,

           বোধে যার চিহ্ন পড়ে ভাষায় কুড়ায়ে তারে রাখা,

                       কী অর্থ ইহার মনে ভাবি।

                                  এই দাবি

                       জীবনের এ ছেলেমানুষি,

           মরণেরে বঞ্চিবার ভান ক'রে খুশি,

                 বাঁচা-মরা খেলাটাতে জিতিবার শখ,

           তাই মন্ত্র প'ড়ে আনে কল্পনার বিচিত্র কুহক।

                 কালস্রোতে বস্তুমূর্তি ভেঙে ভেঙে পড়ে,

           আপন দ্বিতীয় রূপ প্রাণ তাই ছায়া দিয়ে গড়ে।

                 "রহিল" বলিয়া যায় অদৃশ্যের পানে;

           মৃত্যু যদি করে তার প্রতিবাদ, নাহি আসে কানে।

                 আমি বদ্ধ ক্ষণস্থায়ী অস্তিত্বের জালে,

           আমার আপন-রচা কল্পরূপ ব্যাপ্ত দেশে কালে,

                 এ কথা বিলয়দিনে নিজে নাই জানি

           আর কেহ যদি জানে তাহারেই বাঁচা ব'লে মানি।

 

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •