১১ শ্রাবণ, ১৩০৩


 

প্রেয়সী


হে প্রেয়সী, হে শ্রেয়সী, হে বীণাবাদিনী,

আজি মোর চিত্তপদ্মে বসি একাকিনী

ঢালিতেছ স্বর্গসুধা; মাথার উপর

সদ্যস্নাত বরষার স্বচ্ছ নীলাম্বর

রাখিয়াছে স্নিগ্ধহস্ত আশীর্বাদে ভরা;

সম্মুখেতে শষ্যপূর্ণ হিল্লোলিত ধরা

বুলায় নয়নে মোর অমৃতচুম্বন;

উতলা বাতাস আসি করে আলিঙ্গন;

অন্তরে সঞ্চার করি আনন্দের বেগ

বহে যায় ভরা নদী; মধ্যাহ্নের মেঘ

স্বপ্নমালা গাঁথি দেয় দিগন্তের ভালে।

তুমি আজি মুগ্ধমুখী আমারে ভুলালে,

ভুলাইলে সংসারের শতলক্ষ কথা--

বীণাস্বরে রচি দিলে মহা নীরবতা।

          

 

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •