কল্পনা-মধুপ


প্রতিদিন প্রাতে শুধু গুন গুন গান,

লালসে-অলস-পাখা অলির মতন।

বিকল হৃদয় লয়ে পাগল পরান

কোথায় করিতে যায় মধু অন্বেষণ।

বেলা বহে যায় চলে--শ্রান্ত দিনমান,

তরুতলে ক্লান্ত ছায়া করিছে শয়ন,

মুরছিয়া পড়িতেছে বাঁশরির তান,

সেঁউতি শিথিলবৃন্ত মুদিছে নয়ন।

কুসুমদলের বেড়া, তারি মাঝে ছায়া,

সেথা বসে করি আমি কল্পমধু পান;

বিজনে সৌরভময়ী মধুময়ী মায়া,

তাহারি কুহকে আমি করি আত্মদান;

রেণুমাখা পাখা লয়ে ঘরে ফিরে আসি

আপন সৌরভে থাকি আপনি উদাসী॥

 

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •