৬২    


       তোরা শুনিস নি কি শুনিস নি তার পায়ের ধ্বনি,

                    ওই যে      আসে, আসে, আসে।

       যুগে যুগে পলে পলে দিনরজনী

                    সে যে             আসে, আসে, আসে।

                                         গেয়েছি গান যখন যত

                                         আপন-মনে খ্যাপার মতো

                                         সকল সুরে বেজেছে তার

                                                আগমনী-

সে যে       আসে, আসে, আসে।

 

       কত কালের ফাগুন-দিনে বনের পথে

                     সে যে       আসে, আসে, আসে।

কত শ্রাবণ অন্ধকারে মেঘের রথে

সে যে              আসে, আসে, আসে।

 

                                            দুখের পরে পরম দুখে,

                                            তারি চরণ বাজে বুকে,

                                            সুখে কখন্‌ বুলিয়ে সে দেয়

                                                    পরশমণি।

                             সে যে              আসে, আসে, আসে।

 

 

  কলিকাতা, ৩ জ্যৈষ্ঠ, ১৩১৭