সংস্কৃতশিক্ষা

দ্বিতীয় ভাগ সন্ধিসংকেত *


                                 ১                                  ২

                          ক + অ = কা                      ক + ই = কে

                          ক + আ = কা                     ক+ ঈ = কে

                          কা + অ = কা                     কা + ই = কে

                          কা + আ = কা                     কা + ঈ = কে

 

                              ৩                                     ৪

                          ক + এ = কৈ

                          ক + ঐ = কৈ                      কি + আ = ক্যা        

                          কা + এ = কৈ                     কী + আ = ক্যা        

                          কা + ঐ = কৈ

 

                              ৫                                    ৬

                          কৃ + আ = ক্রা                     কে + উ = কউ

                                                              কে + এ = কএ

 

                              ৭                                     ৮

                          কৌ + অ = কাব                   কৌ + উ = কাবু

                                                              কৌ + এ = কাবে

 

 

৯। অকারের পূর্ব্বে বিসর্গযুক্ত অকার বিসর্গ ত্যাগ করিয়া ওকার হয় এবং পরবর্ত্তী অ লোপ হয়। সেই লুপ্ত অকারের নিম্নলিখিত চিহ্নটি থাকে মাত্র; ইহার কোনো উচ্চারণ নাই। হ।

 

                          কঃ + অ = কোহ

 

                           কঃ + অত্র = কোহত্র (উচ্চারণ, কোত্র)

 

*এই গ্রন্থে যে-সকল সন্ধি ব্যবহৃত হইয়াছে তাহারই সংকেত লিখিত হইল। এগুলি মুখস্থ করিবার জন্য নহে। পরবর্ত্তী পাঠসমূহে যেখানে কোনও সন্ধি আসিবে অথবা পাঠচর্চ্চায় যেখানে কোনও সন্ধির আবশ্যক হইবে এই-সকল এক দুই তিন চিহ্নিত সংকেতের সহিত ছাত্রগণ মিলাইয়া লইবে।

 

১০। অ ব্যতীত অন্য সমস্ত স্বরবর্ণের পূর্বে বিসর্গযুক্ত আকারের বিসর্গ লোপ হয়।

 

            কঃ + আ = কআ             কঃ + ই = কই

            কঃ + উ = কউ              কঃ + ঋ = কঋ

 

 

১১। আ ব্যতীত অন্য সমস্ত স্বরবর্ণের পূর্ব্বে বিসর্গযুক্ত আকার তাহার বিসর্গ ত্যাগ করে।

 

            কাঃ + অ = কাঅ             কাঃ + ই = কাই

                                    কাঃ + উ = কাউ ইত্যাদি।

 

 

১২। নিম্নলিখিত ব্যঞ্জনবর্ণের পূর্ব্বে বিসর্গযুক্ত অকার বিসর্গ ত্যাগ করিয়া ওকার হইয়া যায়।

 

                              গ , ঘ

                             জ , ঝ

                             ড , ঢ

                             দ , ধ , ন

                             ব , ভ , ম

                             য , র , ল , ব , হ

          কঃ + গ = কোগ                  কঃ + জ = কোজ

                          কঃ + ন = কোন ইত্যাদি ।

 

 

১৩ । নিম্নলিখিত ব্যঞ্জনবর্ণের পূর্ব্বে বিসর্গযুক্ত আকার তাহার বিসর্গ ত্যাগ করে ।

 

                             গ , ঘ

                             জ , ঝ

                             ড , ঢ

                             দ , ধ , ন

                              ব , ভ , ম

                             য , র , ল , ব , হ

                             কাঃ + গ = কাগ

                             কাঃ + জ = কাজ ইত্যাদি ।

 

 

১৪ । বিসর্গ যখন ই , ঈ , উ , ঊ , ঋ , এ , ঐ , ও , ঔ স্বরবর্ণের সহিত যুক্ত থাকে তখন তাহা পরবর্ত্তী

 

স্বরবর্ণ মাত্রেরই সহিত র্ আকারে যুক্ত হয় ।

 

                 কিঃ + অ = কির                   কিঃ + আ = কিরা

                 কুঃ + ই = কুরি                    কুঃ + উ = কুরু

                 কীঃ +এ = কীরে ইত্যাদি

 

 

১৫ । বিসর্গ যখন ই , ঈ , উ , ঊ , ঋ , এ , ঐ , ও , ঔ স্বরবর্ণের সহিত যুক্ত থাকে তখন তাহা পরবর্ত্তী

 

নিম্নলিখিত ব্যঞ্জনবর্ণের সহিত রেফ্‌ আকারে যুক্ত হয় ।

 

                             গ , ঘ

                             জ , ঝ

                             ড , ঢ

                             দ , ধ , ন

                             ব , ভ , ম

                             য , র , ল , ব , হ

             কিঃ + গ = কির্গ                   কীঃ + ঘ = কীর্ঘ

            কুঃ + জ = কুর্জ                    কূঃ + ঝ = কূর্ঝ

            কেঃ + ড = কের্ড                  কোঃ + ঢ = কোর্ঢ ইত্যাদি ।

 

 

১৬ । বিসর্গ , পরবর্ত্তী চ ও ছ-য়ের সহিত শ্‌ রূপে যুক্ত হয় ।

 

            কঃ + চ = কশ্চ                    কঃ + ছ = কশ্ছ

 

১৭ । বিসর্গ , পরবর্ত্তী ট ও ঠ-য়ের সহিত ষ্‌ রূপে যুক্ত হয় ।

 

            কঃ + ট = কষ্ট           কঃ + ঠ = কষ্ঠ

 

১৮ । বিসর্গ , পরবর্ত্তী ত ও থ-য়ের সহিত স্‌ রূপে যুক্ত হয় ।

 

            কঃ + ত = কস্ত                    কঃ + থ = কস্থ

 

১৯ । স্বরবর্ণের পর ছ আসিলে সেই ছ-য়ের সহিত চ যুক্ত হয় ।

 

            ক + ছ = কচ্ছ                     কি + ছ = কিচ্ছ

 

                        কু + ছ = কুচ্ছ ইত্যাদি ।

 

২০ । ত্‌-য়ের পর কোনো স্বরবর্ণ থাকিলে তাহা দ হইয়া সেই স্বরবর্ণের সহিত যুক্ত হয় ।

 

            কত্‌ + অ = কদ                   কত + ই = কদি

 

                            কত্‌ + এ = কদে

 

২১ । ত্‌-য়ের পর ন আসিলে উভয়ে মিলিয়ে ন্ন হয় ।

 

                     কত্‌ + ন = কন্ন

 

২২ । ত্‌-য়ের পর চ আসিলে উভয়ে মিলিয়া চ্চ হয় ।

 

                      কত্‌ + চ = কচ্চ

 

  •