ভারতী, মাঘ, ১২৮৪


 

সংযোজন


          হম সখি দারিদ নারী!

জনম অবধি হম পীরিতি করনু

          মোচনু লোচন-বারি।

রূপ নাহি মম, কছুই নাহি গুণ

          দুখিনী আহির জাতি,

নাহি জানি কছু বিলাস-ভঙ্গিম

          যৌবন গরবে মাতি।

অবলা রমণী, ক্ষুদ্র হৃদয় ভরি

          পীরিত করনে জানি;

এক নিমিখ পল, নিরখি শ্যাম জনি

          সোই বহুত করি মানি।

কুঞ্জ পথে যব নিরখি সজনি হম,

শ্যামক চরণক চীনা,

শত শত বেরি ধূলি চুম্বি সখি,

          রতন পাই জনু দীনা।

নুঠুর বিধাতা, এ দুখ-জনমে

          মাঙব কি তুয়া পাশ!

জনম অভাগী, উপেখিতা হম,

          বহুত নাহি করি আশ,--

দূর থাকি হম রূপ হেরইব,

          দূরে শুনইব বাঁশি।

দূর দূর রহি সুখে নিরীখিব

          শ্যামক মোহন হাসি।

শ্যাম-প্রেয়সি রাধা! সখিলো!

          থাক' সুখে চিরদিন!

তুয়া সুখে হম রোয়ব না সখি

          অভাগিনী গুণ হীন।

অপন দুখে সখি, হম রোয়ব লো,

          নিভৃতে মুছইব বারি।

কোহি ন জানব, কোন বিষাদে

          তন-মন দহে হমারি।

ভানু সিংহ ভনয়ে, শুন কালা

          দুখিনী অবলা বালা--

উপেখার অতি তিখীনি বাণে

          না দিহ না দিহ জ্বালা।

 

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •